ঢাকা, ১৭ অক্টোবর, ২০১৯ ১৩:০৮:৫০ || ২ কার্তিক ১৪২৬
Advertisement
৮১২

কাঠমান্ডু যাচ্ছে ইউ-এস বাংলা

এভিয়েশন করেসপন্ডেন্ট

প্রকাশিত: ২১ এপ্রিল ২০১৬   আপডেট: ২৬ এপ্রিল ২০১৬


জনপ্রতি ১১ হাজার ৭৯০ টাকায় ঢাকা থেকে নেপাল যাত্রার সুযোগ করে দিলো ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স। আগামী ১৫ মে থেকে হিমালয় কন্যা নেপালের কাঠমান্ডুর উদ্দেশে উড়ছে দেশীয় উড়োজাহ‍াজ সংস্থাটির আন্তর্জাতিক ফ্লাইট।

রোববার (১০ এপ্রিল) বিকেলে রাজধানীর সোনারগাঁ হোটেলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন এসব তথ্য জানান।

তিনি জানান, বাংলাদেশি পর্যটকদের জন্য আকর্ষণীয় গন্তব্য হিমালয় কন্যা নেপাল। এ বিষয়টি মাথায় রেখেই কাঠমান্ডুতে আগামী ১৫ মে থেকে প্রথম আন্তর্জাতিক ফ্লাইট পরিচালনা করতে যাচ্ছি আমরা। প্রাথমিকভাবে সপ্তাহে ৩ দিন অর্থাৎ রোব, মঙ্গল, বুধবারে ফ্লাইট চালানো হবে।

‘ফ্লাইটের সূচি বিষয়ে আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, নির্ধারিত তিনদিন দুপুর ৩টায় ঢাকা থেকে ছেড়ে স্থানীয় সময় বিকেল সাড়ে ৩টায় কাঠমান্ডুতে পৌঁছাবে। কাঠমান্ডু থেকে বিকেল ৫টা ১০ মিনিটে ছেড়ে সন্ধ্যা ৭টা ১০ মিনিটে ঢাকায় পৌঁছাবে।’

তিনি জানান, ঢাকা থেকে কাঠমান্ডু রুটে ন্যূনতম আকর্ষনীয় রিটার্ন ১৭ হাজার ৬২২ টাকা এবং ওয়ান ওয়ের জন্য ১১ হাজার ৭৯০ টাকা ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে, যা সকল ট্যাক্স ও সারচার্জ ছাড়া।

এছাড়া একজনের জন্য ন্যূনতম কাঠমান্ডু ও পোখারায় ৬ দিন ৫ রাত ৩৮ হাজার ৭০০ টাকা, নাগরকোটে ৩দিন ২ রাত ২৭ হাজার ৫০০ টাকা ও কাঠমান্ডুতে ৩দিন ২ রাত ২১ হাজার ৭০০ টাকায় বিভিন্ন প্যাকেজ রয়েছে।

‘এভাবে নেপালের পর্যটকদের জন্যও বাংলাদেশের পর্যটন স্পটগুলোতে নানা প্যাকেজ রাখা হয়েছে।’

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, কানাডিয়ান বোম্বারডিয়ার তৈরি ৭৮ আসনের ড্যাশ-৮ কিউ ৪০০ নেক্সট জেনারেশন সিরিজের এয়ারক্রাফট দিয়ে ঢাকা-কাঠমান্ডু রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করবে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স।

বর্তমানে এ ফ্লিটে রয়েছে তিনটি ড্যাশ-৮ কিউ ৪০০ নেক্সট জেনারেশন সিরিজের এয়ারক্রাফট।

আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, চলতি বছরের জুন মাসের মধ্যে দু’টি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ এয়ারক্রাফট ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের বহরে যুক্ত হবে। এগুলো দিয়ে পর্যায়ক্রমে কলকাতা, কুয়ালালামপুর, ব্যাংকক, সিঙ্গাপুর, মাসকট, দোহা, দাম্মামসহ বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক রুটে ফ্লাইট চালানো হবে।

‘এছাড়া নভেম্বরের মধ্যে আরও দু’টি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ ও একটি ড্যাশ-৮ কিউ ৪০০ নেক্সট জেনারেশন সিরিজের এয়ারক্রাফট যোগ করার পরিকল্পনা রয়েছে,’ বলেন তিনি।

আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, ইউএস-বাংলাই একমাত্র এয়ারলাইন্স, যা বাংলাদেশের এভিয়েশনে খুবই কম সময়ে আন্তর্জাতিক রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করতে যাচ্ছে। আমি আশা করি, আমাদের এই ফ্লাইট পরিচালনার মধ্য দিয়ে দুই ভ্রাতৃপ্রতীম দেশের মধ্যে সম্পর্ক আরো নিবিড় হবে।

‘একই সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যমে দুই দেশের মধ্যে অর্থনৈতিক সম্পর্ক, ট্যুরিজম ও ব্যবসা বাণিজ্য আরো সম্প্রসারিত হবে।’

বর্তমানে ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, সিলেট, যশোর, সৈয়দপুর, রাজশাহী ও বরিশাল রুটে প্রতিদিনই উড়ছে
ইউএস-বাংলার ফ্লাইট।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে ঢাকাস্থ কানাড‍ার হাইকমিশনার বেনোয়া পিয়েরে লারামি, নেপালের চার্জ ডি-অ্যাফেয়ার্স দিল্লি প্রসাদ আচারিয়া, ট্রাভেল বিষয়ক দ্য মনিটর পত্রিকার সম্পাদক কাজী ওয়াহিদুল আলম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৭০৮ ঘণ্টা, এপ্রিল ১০, ২০১৬, আপডেট: ১৮১২ ঘণ্টা


এই বিভাগের আরো খবর