ঢাকা, ১৫ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:২৯:৪৯ || ৩০ কার্তিক ১৪২৬
Advertisement
১১৫৭

পর্যটন দিবসে ১৬ দিনব্যাপী কর্মসূচি

এভিয়েশন করেসপন্ডেন্ট

প্রকাশিত: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৩   আপডেট: ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৩


ঢাকা: বিশ্ব পর্যটন দিবসকে সামনে রেখে ১৬ দিনব্যাপী কর্মসূচি হাতে নিয়েছে জাতীয় পর্যটন সংস্থা বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড (বিটিবি)। এ বছর পর্যটন দিবসের মূল প্রতিপাদ্য হচ্ছে ‘সার্বজনীন ভবিষ্যত সুরক্ষায় পর্যটন ও পানি’।    

রোববার ট্যুরিজম বোর্ডের কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে পর্যটন দিবসের কর্মসূচি তুলে ধরেন ট্যুরিজম বোর্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) আকতারুজ জামান খান কবির।  

আকতারুজ জামান খান কবির বলেন, দেশের পর্যটন এগিয়ে যাচ্ছে। প্রতিবছরই দেশে বিদেশি পর্যটক বাড়ছে। সেই সঙ্গে বাড়ছে দেশের অভ্যন্তরীণ পর্যটকও।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন দেশের প্রথম এভারেস্ট বিজয়ী মূসা ইব্রাহিম।

এ প্রসঙ্গে আকতারুজ জামান খান কবির বলেন, মূসা ইব্রাহিম দেশের ব্র্যান্ড। তার ব্র্যান্ডিং ইমেজকে কাজে লাগাতে চাই।  

ঢাকা ছাড়াও চট্টগ্রাম, সিলেটসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে নানা কর্মসূচি হাতে নেওয়া হয়েছে। ২৭ সেপ্টেম্বর পর্যটন দিবসে রমনার সামনে থেকে র‌্যালি করা হবে। এর বাইরে ওয়ার্কশপ, নৌকাবাইচ, সেমিনার, বির্তক প্রতিযোগিতা, আলোকচিত্র প্রদর্শনী, টকশো, খাদ্য উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে।

দিবসটিকে কেন্দ্র করে ৪র্থ জাতীয় হাওর উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে ট্যুরিজম বোর্ড ও পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলনের পক্ষ থেকে।  

মূসা ইব্রাহিম বলেন, পর্যটনকে বৈচিত্র্যময় করতে ওয়াটার সাফারি চালু করতে পারি। আফ্রিকাতে এটি খুবই জনপ্রিয়। এক্ষেত্রে আমরা অনুকরণীয় হতে পারি। নদীমাতৃক দেশ হিসেবে এই সুযোগটাকে কাজে লাগাতে চাই।

তিনি বলেন, কমিউনিটি ট্যুরিজমকেও কাজে লাগাতে চাই। অংশগ্রহনমূলক কাজের অংশ হিসেবে এটি করা উচিত। দেশের সমাজকে বিশ্ব দরবারে তুলে ধরতে হবে। দেশের সংস্কৃতি, দেশাত্ববোধকে তুলে ধরতে বিদেশি আমাদের দেশের প্রতি আকৃষ্ট করতে হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৪৯ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৩